Tandoori Chicken

তন্দুরি চিকেন

যা যা লাগবে ঃ

  • চিকেন – ১ টা ।
  • টক দই – আধা কাপ
  • আদা বাটা – ১ চা চামচ
  • রসুন বাটা – ১ চা চামচ
  • গরম মসলা গুড়া – আধা চা চামচ
  • গুলমরিচ – আধা চা চামচ
  • পাপরিকা পাউডার – ১ চা চামচ
  • সরিষার তেল – ৪ টেবিল চামচ
  • লবন – পরিমান মত
  • হলুদ গুরা – ১ চা চামচ
  • লেমন জুস – ১ টেবিল চামচ।

কিভাবে করবেন ঃ

  • চিকেন ধুয়ে পরিস্কার করে করে নিন।  সব মসলা এক সাথে মিশিয়ে  চিকেনে লাগিয়ে মেরিনেট করে রাখুন .২/৩ ঘণ্টা। বা আগের দিন রাতে মেরিনেট করে রাখতে পারেন।
  • এবার চিকেনটা প্রিহিট করা গ্রিলারে গ্রিল করে নিন । তারপর সালাদ, রাইস বা নানের সাথে পরিবেশন করুন।

Red velvet pastry

রেড ভেলভেট কেক সাধারণত রেড কালার ও ডার্ক রেড কালার হয়ে থাকে। আপনি চাইলে কালার না দিয়ে বিটরুট ব্যবহার করতে পারেন রেড কালারটা আনার জন্য। কালারটা ব্রাইট চাইলে কোকো পাউডার পরিমাণ কিছুটা কমিয়ে দিবেন।

Recipe : https://www.youtube.com/watch?v=hnWPAOd6DFw

রেড ভেলভেট পেস্ট্রি যা যা লাগবে • ময়দা — ৫০০ গ্রাম • কোকো পাউডার—২ টেবিল চামচ • বেকিং সোডা — দেড় টেবিল চামচ • লবন — ১ চা চামচ • চিনি — ৫০০ গ্রাম • ডিম — ৩ টি • তেল— ১০০ মিলি • বাটার –১০০ গ্রাম • টক দই—১ কাপ • ভ্যানিলা — ২ চা চামচ • রেড কালার — ৩ টেবিল চামচ • কফি —আধা কাপ • ভিনেগার — দেড় টেবিল চামচ

কিভাবে করবেন  একটা বোলে ময়দা,বেকিং পাউডার চেলে নিন ।  চিনি, বাটার ও তেল একসাথে বিট করুন । তারপর ডিম দিয়ে বিট করুন। কফি, দই, ভ্যানিলা ও কালার ভাল করে মিশিয়ে বাটারের মিকচারে মিশিয়ে দিন।  এই মিস্রনের সাথে অল্প অল্প করে ময়দা কোকো পাউডার পর্যায়ক্রমে মিশিয়ে দিন। তারপর বেকিং সোডার সাথে ভিনেগার মিশিয়ে ওই মিশ্রণটাতে দ্রুত মিশিয়ে দিন।  ১৮০ ডিগ্রিতে ৪০ মিনিট বেক করতে হবে। বা প্রয়োজনে আরও কিছু বেশি সময় বেক করুন।  বেক হয়ে গেলে ঠাণ্ডা করে কেটে পরিবেশন করুন। #Redvelvetcake #Cake #রেডভেলভেটকেক #Pastry

মেস্টা ফলের জেলি/Rosella Fruits Jelly|

Recipe: https://www.youtube.com/watch?v=600OD1Bj844

সাধারণত শীতকালেই এই ফলটা সাধারণ বাজারগুলিতে দেখা যায়। এটা মেস্টা /টক ফল ইত্যাদি বিভিন্ন নামে পরিচিত । দামেও অনেক কম । আমার কাছে মনে হয় জেলি করার জন্য সবচেয়ে উপযোগী ফল এটাই। কোন কালার,ক্যামিকেল, চায়না গ্রাস বা জিলাটিন ছাড়াই জেলিটি তৈরি করা হয়েছে।

তবে জেলি করার সময় একটা কথা মনে রাখতে হবে, যেসব ফলে প্যাকটিনের পরিমান বেশি থাকে সে ফলের জেলি খুব সহজে জমে যাবে। আর প্যাকটিন না থাকলে আলাদা প্যাকটিন/আগার আগার/চায়না গ্রাস দিয়ে জমাতে হবে। তাই যারা নতুন জেলি তৈরি করছেন,তারা হাতের কাছেই এগুলো রাখুন,তারপর জেলি তৈরি শুরু করুন। তবে আমি শুধুমাত্র চিনি দিয়েই করেছি,আগার আগার দেয়ার প্রয়োজন হয়নি।

জেলি জমবে না তখনই যদি সে ফলে প্যাকটিন না থাকে । লেবু বা সাইট্রিক এসিড জেলিটা জমে যাবার পর নামিয়ে ফেলার সময় দিতে হবে । অনেক সময় লেবু বা সাইট্রিক এসিড প্যাকটিনকে জমতে দেয় না । তাই প্রথম অবস্তায় লেবু বা সাইট্রিক এসিড না দিয়েই শুরু করুন। খুব বেশি পানি দিলে, বা জাল কম দিয়ে পানিটা বেশি থাকলেও অনেক সময় জেলিটা জমবে না।

My Kitchen Studio Tour

My Channel https://www.youtube.com/watch?v=l99K_x3KKDYছোটবেলায় একটা স্বপ্ন ছিল যে, আমার নিজের একটা কিচেন থাকবে। যেটা আমিই ডিজাইন করবো। ডাইনিংটা হবে রেস্টুরেন্টের মত, থাকবে সব ধরনের রান্নার ব্যবস্থা।

আজকে বাংলাদেশি ফুড, কালকে ইন্ডিয়ান ফুড, পরশু এরাবিয়ান ফুড, তার পরদিন ইংলিশ ফুড। আঞ্চলিক রান্না, পিঠা, কেক পেস্ট্রি এইভাবে চলতেই থাকবে।

ইচ্ছা হওয়া মাত্রই সেটা রান্না করে টেবিলে হাজির করে ফেলবো। কিচেন থেকে বের হলেই থাকতে হবে একটা বাজার। যখন ইচ্ছা হবে বাজারে থেকে ফ্রেশ সবকিছু এনে সাথে সাথে রান্না করে ফেলবো।

এত বছর পর চিন্তা করে দেখলাম, আমার সেই স্বপ আসলে অনেকটাই পূরণ করেছি। “সাইদাস কিচেন” এখন একটা সম্পূর্ণ কিচেন স্টুডিও। যেখানে আছে কুকিং ক্লাস, কুকিং শো, ফুড স্টাইলিং ও ফুড ফটোগ্রাফির জন্য আলাদা সব আয়োজন।

সেই সাথে NHTTI ও BTEB ২ টা গভমেন্ট ইনস্টিটিউট থেকেই আমি নিয়েছি সর্বোচ্চ প্রশিক্ষণ। এছাড়া করেছি প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেল থেকে ইন্টার্নশিপ ট্রেনিং। নিজেই করেছি সবকিছুর ডিজাইন। নিচে না হলেও কাছাকাছি একটা বাজারও আছে 😊

ইন্টেরিয়রের কাজ ভালো লাগে সবসময়ই। এ পর্যন্ত করেছি বেশ কিছু কাজ। কিন্তু নিজের কিচেন স্টুডিও করতে গিয়ে যে পরিমাণ মস্তিষ্কের কাজ ও শারীরিক কাজ করতে হয়েছে সেটা সারাজীবনেও করিনি।

দিন নাই রাত নাই সারাদিন শুধু ফিতা নিয়ে ঘুরেছি,আর মেপেছি কোথায় কত ইঞ্চি জায়গা আছে। প্রতিদিন ফার্নিচার ঠেলতে ঠেলতে নিয়েছি এক জায়গা থেকে আরেক জায়গায়। ওয়ালে ১ ফিট জায়গাও খালি নাই যেখানে আমি নিজে ড্রিল করিনি।

কিছুদিন পর পর বদলে ফেলেছি সব রং। তবে সবার আগে গুরুত্ব দিয়েছি নিজের কাজের সুবিধা ও আরাম। তো চলুন তাহলে দেখি আমার কিচেন ষ্টূডিও ।

Turkey Roast

Recipe: https://www.youtube.com/watch?v=BUQdW5GjFUwটার্কি রোস্ট সাধারণত ক্রিসমাস ও থ্যাংকস গিভিং পার্টিতে করা হয়। আমাদের দেশেও পাওয়া যাচ্ছে এখন এই টার্কি। একটা টার্কি রোস্ট করতে কতটা সময় লাগে সেটা নির্ভর করে টার্কির ওজনের উপর। প্রতি ১ পাউন্ডে সময় লাগে ১৩ মিনিট করে। যেহেতু এটা লম্বা সময় ধরে করা হয় তাই এটা ওভেনে রোস্ট করার সময় সবচেয়ে নিচের রেকে রেখে করতে হয়।

“ক্রিম অফ টমেটো সুপ”

আজকের মেনুতে আছে আমার সবচেয়ে প্রিয় একটা সুপ। রেসিপি আছে ছবির সাথেই।

1 2 3 8